নোবেলজয়ী মহম্মদ ইউনুসের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন বাংলাদেশের দুর্নীতি দমন কমিশনের

সুকুমার সরকার, ঢাকা: আরও বিপাকে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ও গ্রামীণ কমিউনিকেশনসের চেয়ারম্যান ড. মহম্মদ ইউনুস। আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত করতে এবার তিন সদস্যের দল গঠন করেছে বাংলাদেশের দুর্নীতি দমন কমিশন।
বিবিসি সূত্রে খবর, গ্রামীণ টেলিকমের বিরুদ্ধে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা অবৈধভাবে সহযোগী প্রতিষ্ঠানে স্থানান্তর, শ্রমিক-কর্মচারীদের লভ্যাংশের টাকা লোপাট, কল্যাণ তহবিলের অর্থ বরাদ্দ না করে আত্মসাতের মতো অভিযোগ পাওয়ার পর তারা অনুসন্ধান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দুর্নীতি দমন কমিশনের সচিব মাহবুব হাসান সাংবাদিকদের বলেছেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রকের কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের একটি অভিযোগের প্রেক্ষিতে কমিশন এই অনুসন্ধান শুরু করেছে। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, পদ্মা সেতুর অর্থায়ন থেকে বিশ্বব্যাংকের সরে যাওয়ার নেপথ্যেও ড. ইউনূসের ভূমিকা ছিল বলে সরকারের শীর্ষ মহল থেকে অভিযোগ তোলা হয়েছে।
[আরও পড়ুন: বাংলাদেশে সফল হলেও বিদেশে ব্যর্থ মহম্মদ ইউনুস, ধাক্কা খেল তাঁর উদ্যোগ]
বাংলাদেশে গ্রামীণ ব্যাংকের মাধ্যমে ক্ষুদ্রঋণ ব্যবস্থা চালু করেন মহম্মদ ইউনুস। গ্রামীণ টেলিকমের মাধতোমে যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও মজবুত করেছেন ইউনুস বলেও মনে করেন অনেকে। কিন্তু এই দুই প্রতিষ্ঠানেই বিস্তর আর্থিক কেলঙ্কারি হয়েছে বলে অভিযোগ। তারমধ্যে অন্যতম হচ্ছে, বেআইনিভাবে শ্রমিক ও কর্মীদের মধ্যে বণ্টনের জন্য সংরক্ষিত লভ্যাংশের পাঁচ শতাংশ লোপাট। শুধু তাই নয়, শ্রমিক-কর্মচারীদের পাওনা পরিশোধের সময় অবৈধভাবে আইনজীবীর ফি-সহ অন্যান্য ফিয়ের নামে ছয় শতাংশ অর্থ কর্তন করা হয়েছে বলেও অভিযোগ। গ্রামীণ টেলিকম থেকে ২ হাজার ৯৭৭ কোটি টাকা মানি লন্ডারিংয়ের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তরও করা আহয়েছে। শ্রমিকদের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ-সহ এসব অভিযোগ জানিয়ে কমিশনকে চিঠি দেয় শ্রমমন্ত্রকের অধীনস্থ কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর।
এদিকে, সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে ইউনূস সেন্টার। তাদের দাবি, পদ্মা সেতু প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়ন বন্ধে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তোলা হয়েছে, তা নিতান্তই কল্পনাপ্রসূত। তিনি নিয়মিত কর রিটার্ন জমা দেন ও পরিশোধ করেন। গ্রামীণ ব্যাংকের এমডি হিসাবে বেতনের বাইরে তিনি কোন অর্থ গ্রহণ করেননি। তার আয়ের মূল উৎস হলো ভাষণের উচ্চ ফি, বইয়ের রয়্যালটি ও স্থায়ী আমানতের আয়।
[আরও পড়ুন: শ্রম আইন ভাঙার অভিযোগ, ফৌজদারি মামলা নোবেলজয়ী ড. ইউনুসের বিরুদ্ধে]

Source: Sangbad Pratidin

Related News
‘আমার বাড়িতে ED-CBI গেলে কী করবেন?’, পার্থর গড়ে দাঁড়িয়ে প্রশ্ন মুখ্যমন্ত্রীর

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: এসএসসি দুর্নীতি মামলায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হাতে হাতকড়া পরিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এরপরই গরু পাচার মামলায় সিবিআইয়ের জালে অনুব্রত মণ্ডল। Read more

নীরজ নন, আশিস নেহরাকে জ্যাভলিন থ্রোয়ার বললেন পাক বিশ্লেষক! তীব্র কটাক্ষ শেহওয়াগের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এ যেন ছিল রুমাল, হয়ে গেল বিড়াল। আশিস নেহরা ছিলেন ক্রিকেটার, হয়ে গেলেন জ্যাভলিন থ্রোয়ার! না, Read more

ফাঁকা বাড়িতে চার বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণ! অভিযুক্ত ১৬ বছরের প্রতিবেশী

রমণী বিশ্বাস, তেহট্ট: চার বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল ১৬ বছরের এক নাবালকের বিরুদ্ধে। শনিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটে করিমপুর থানার Read more

‘দেশভাগের জন্য দায়ী নেহরু’, বিজেপির ভিডিও নিয়ে জোর বিতর্ক, পালটা দিল কংগ্রেস

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিজেপির (BJP) নিশানায় জওহরলাল নেহরু (Jawaharlal Nehru)। ১৪ আগস্ট রবিবার সারা দেশে ‘দেশভাগের ভয়াবহতা স্মরণ Read more

চিটফান্ডের নামে দু’হাজার কোটির প্রতারণার মামলায় এবার ব্যবসায়ীকে জেরা, মিলল নথিও

অর্ণব আইচ: চিটফান্ডের নাম করে দু’হাজার কোটি টাকার প্রতারণার অভিযোগে এবার দক্ষিণ কলকাতার এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে তল্লাশি চালাল রাজ্য সরকারের Read more

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সম্পর্কে আপত্তিকর পোস্ট, নোবেলকে আইনি নোটিস বাংলাদেশের আইনজীবীর

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে (Rabindranath Tagore) ফেসবুকে কটুক্তির জের। বাংলাদেশের সংগীত শিল্পী মইনুল আহসান নোবেলকে আইনি নোটিস Read more