সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালের খবরের জের, প্রশাসনিক তৎপরতায় শিকল মুক্ত ‘অসুস্থ’ যুবক

রাজা দাস, বালুরঘাট: অর্থাভাবে বন্ধ চিকিৎসা। হাজার আরজি জানিয়েও মেলেনি প্রতিবন্ধীর শংসাপত্র। বাধ্য হয়েই মা-বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলেকে বেঁধে রেখেছেন শিকলে। এমনই বেদনাদায়ক খবর তুলে ধরেছিল সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল। সেই খবরের জেরেই এবার মিলল সুবিচার। অসহায় ওই পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন বালুরঘাট পৌরসভার পৌরপিতা। তাঁর উদ্যোগেই শেষমেশ শৃঙ্খলামুক্ত হলেন মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক।
দক্ষিণ দিনাজপুর (South Dinajpur) জেলার বালুরঘাটের বঙ্গী এলাকার পদ্মপুকুর পাড়ার ঘটনায় নজর দেয়নি প্রশাসন। চিকিৎসার মাধ্যমে ছেলেকে সুস্থ করে শিকল মুক্ত জীবন চাইছিল দরিদ্র পরিবার। পদ্মপুকুর পাড়ায় সরু গলির মধ্যে বাড়ি নারায়ণ দাস নামে এই যুবকের। দু’পায়ে লোহার শিকলে ভীষণ কষ্ট তার। কিন্তু বাবা-মা নিরুপায়। যদিও জীবনের প্রথম দিকটা ঠিক এমন ছিল না নারায়ণের। আর পাঁচজন ছেলের মতোই বড় হয়ে উঠছিল সে। কিন্তু হঠাৎ করেই পালটে যায় তার স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। মানসিক রোগ ধরা পড়ে তার। জমানো অর্থে প্রথমে স্থানীয়ভাবে ছেলের চিকিৎসা করাতেন পেশায় টোটো চালক বাবা বাবলু দাস। পরবর্তীতে অর্থের অভাবে বন্ধ হয়ে যায় তার চিকিৎসা। ফলে দিন দিন বাড়তে থাকে তার মানসিক রোগ। বাধ্য হয়েই ছেলের পায়ে লোহার শিকল আটকে দেন পরিবারের সদস্যরা। সেভাবেই ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয় তাকে।
[আরও পড়ুন: দেওরের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েও সম্পর্ক ভাঙতে চান বউদি, অভিমানে আত্মঘাতী যুবক]
এই খবর প্রচারিত হওয়ার পরই তা কানে পৌঁছায় বালুরঘাট পুরসভার। পুরসভার চেয়ারম্যান অশোক মিত্র বুধবার এলাকায় গিয়ে ওই নারায়ণের পরিবারের লোকদের বোঝান। বলেন, যুবককে শিকল মুক্ত করতে। পাশাপাশি ওই যুবককে চিকিৎসার আশ্বাস দেনও চেয়ারম্যান। পরিবারকে বলেন, যে কোনও প্রকার সাহায্যে যেন পুরসভাকে জানানো হয়।
মানসিক রোগ ধরা পড়ে তার। জমানো অর্থে প্রথমে স্থানীয়ভাবে ছেলের চিকিৎসা করাতেন পেশায় টোটো চালক বাবা বাবলু দাস। পরবর্তীতে অর্থের অভাবে বন্ধ হয়ে যায় তার চিকিৎসা। ফলে দিন দিন বাড়তে থাকে তার মানসিক রোগ। বাধ্য হয়েই ছেলের পায়ে লোহার শিকল আটকে দেন পরিবারের সদস্যরা। সেভাবেই ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয় তাকে। পেশায় টোটো চালক বাবলু দাস বলেছিলেন, পাড়া-প্রতিবেশীদের যাতে কোনও অসুবিধা কিংবা ক্ষতি না হয়, তার জন্যই ছেলের পায়ে শিকল পরিয়েছেন। আবার দূরে কোথাও চলে যাওয়ার দুশ্চিন্তা থেকেও তাকে শিকলে বেঁধে রাখা। অনেকের কাছে গিয়েছেন ছেলের একটি প্রতিবন্ধী কার্ডের করানোর জন্য। কিন্তু কারও কাছ থেকেই কোনও সাহায্য পাননি। অবশেষে প্রশাসন পাশে দাঁড়ানোয় ছেলের সুস্থ হওয়ার স্বপ্ন দেখছে পরিবার। পুরসভার চেয়ারম্যানের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয়রাও।
[আরও পড়ুন: ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জের, কেজরিওয়ালের বাড়িতে ‘হামলা’ বিজেপি কর্মীদের]

Source: Sangbad Pratidin

Related News
হরমোনের মাত্রায় গড়বড় হলেই বিপদ, সতর্ক হবেন কীভাবে? উপায় বাতলে দিলেন বিশেষজ্ঞ

হরমোন শরীরের সবচেয়ে কার্যকর কেমিক্যাল। একটু এদিক-ওদিক হলেই নানারকম সমস্যায় পড়তে হয়। অধিকাংশ মহিলার ভোগান্তি এই নিয়েই। হরমোনের গতিবিধি ঠিক Read more

আন্দোলনের আঁতুরঘর যাদবপুরের পড়ুয়াদেরই পছন্দ, ১০ জনকে কোটি টাকা চাকরির প্রস্তাব

দীপঙ্কর মণ্ডল: ছাত্র আন্দোলনের সূতিকাগার বলে পরিচিত যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের (Jadavpur University) ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের কোটি কোটি টাকার চাকরির অফার দিল বিভিন্ন Read more

নকল লিঙ্গ ব্যবহার করে ৩ তরুণীর সঙ্গে সঙ্গম! যুবকের বিরুদ্ধে দায়ের প্রতারণার মামলা

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নকল কিনে ঠকেছেন! বিজ্ঞাপন জগতে এই লাইনটি হামেশাই চোখে পড়বে। অনেকেই নানা সময় নকল জিনিস কিনে Read more

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ‘গোল্ডেন আই’ সম্মান পেল বাঙালি পরিচালকের তথ্যচিত্র

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কান চলচ্চিত্র উৎসবে (Cannes Film Festival) ‘গোল্ডেন আই’ পুরস্কার পেল বাঙালির পরিচালক সৌনক সেনের তথ্যচিত্র ‘অল Read more

ভরসন্ধেয় কাশ্মীরে ফের এনকাউন্টার, নিকেশ আরও দুই জঙ্গি, ৪ দিনে খতম ১২ জেহাদি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীরে ফের জোরকদমে শুরু জঙ্গি নিধন প্রক্রিয়া। গত চারদিনে উপত্যকায় নিকেশ হয়েছে ১২ জন জেহাদি। যার Read more

যৌন মিলনের দশ মিনিট পরেই স্মৃতিশক্তি হারালেন বৃদ্ধ! কেন হল এমন?

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যৌন মিলনের (Sexual Intercourse) পরে অসুস্থ হওয়ার ঘটনা নতুন না। ক’দিন আগেই এক ব্যক্তির যৌন সংসর্গের Read more