‘অনেকের থেকে বেশি যোগ্য হয়েও পদ্মবিভূষণ পাননি বাবা’, ক্ষোভ উগরে দিলেন বাপ্পি লাহিড়ীর ছেলে বাপ্পা

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখ প্রয়াত হন কিংবদন্তি সংগীত পরিচালক বাপ্পি লাহিড়ী। কলকাতায় এসে তাঁর পুত্র বাপ্পা লাহিড়ী অস্থি বিসর্জন করেছেন গঙ্গাতে। ভারতীয় সংগীত জগত হারিয়েছে প্রবাদ প্রতীম এই শিল্পীকে। বাপ্পি লাহিড়ীকে (Bappi Lahiri) হারিয়ে এখনও শোকস্তব্ধ তাঁর পরিবার। তাঁর স্মৃতি আঁকড়ে ধরেই নস্ট্যালজিয়ায় ভেসে চলেছেন তাঁর পরিবার।
সম্প্রতি এক সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বাপ্পি লাহিড়ী স্মৃতিমন্থন করতে গিয়ে বাপ্পা জানালেন, ‘বাবার জীবনটা একেবারে গল্পময়। তাঁর স্ট্রাগল অনুপ্রেরণা দেওয়ার মতো। তাই বাবার জীবন নিয়ে বায়োপিক করতে চাই। বাবাও জানতেন। বাবা চেয়েছিলেন রণবীর সিং যেন তাঁর চরিত্রে অভিনয় করেন।’
তবে এখানেই শেষ নয়, এই সাক্ষাৎকারে বাপ্পি লাহিড়ীর শেষ ইচ্ছা নিয়েও মুখ খুললেন তাঁর ছেলে বাপ্পা। তাঁর কথায়, ‘ সংগীত জগতে বাবার অবদান প্রচুর। তবে  বাবার একটাই দুঃখ ছিল। এ দেশের সর্বোচ্চ  সম্মান তিনি পাননি। বিশেষ করে পদ্মবিভূষণ। তবে বাবা কখনও এসব মুখ ফুটে বলেননি। তবে আমরা বুঝতে পারতাম। শিল্পী হিসেবে একটা খেদ তো ছিলই। ইতিমধ্যেই যে সব শিল্পী পদ্মবিভূষণ পেয়েছেন, বাবা তাঁদের তুলনায় কোনও অংশেই কম ছিলেন না। ‘
[আরও পড়ুন: মাত্র ২৪ বছর বয়সে মৃত্যু ‘গাল্লি বয়’ খ্যাত ব়্যাপারের, শোকস্তব্ধ রণবীর সিং, সিদ্ধান্ত চতুর্বেদীরা]
গত শতকের আটের দশকে ভারতীয় চলচ্চিত্রের জগতে পপ-ডিস্কো গানের যে জোয়ার এসেছিল তাঁর অন্যতম পুরোধা ছিলেন বাপি। ‘ডিস্কো ডান্সার’ (১৯৮২), ‘ডান্স ডান্স’ (১৯৮৭) হয়ে একের পর এক ছবিতে করা তাঁর সুর সেই সময়ের তরুণ প্রজন্মকে আন্দোলিত করেছিল। সেই সময়ের এক প্রতিনিধি হিসেবে বাপি লাহিড়ীর অবদান চিরকাল স্মরণীয় হয়ে হবে। সংগীতের সমসাময়িকতা যে তাঁর নাড়ির স্পন্দনে তা নতুন করে প্রমাণিত হয়েছিল ২০১১ সালে ‘ডার্টি পিকচার’ ছবিতে ‘উ লা লা’ গানের মধ্যে দিয়ে। তিনি বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, প্রজন্মের পর প্রজন্মকে বুঁদ করে রাখার কোন জাদুক্ষমতায় বলীয়ান তিনি। তবে কেবল পপ বা ডিস্কো নয়, নরম রোম্যান্টিক গানেও যে তিনি অনন্য তা পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল কেরিয়ারের শুরুতে ‘চলতে চলতে’ (১৯৭৬) ছবিতে বাপির করা সুর থেকেই।
একেবারে ছোটবেলা থেকেই সাংগীতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা। বাবা ও মা দু’জনেই ছিলেন সংগীত জগতের মানুষ। ৩ বছর বয়সে তবলা বাদক হিসেবে কেরিয়ার শুরু। ২০২০ সালে ‘বাগী ৩’ ছবিতে ‘ভাঙ্কাস’ গানটিই ছিল তাঁর শেষ কাজ। মাঝের দীর্ঘ সময়ে সুরকার তো বটেই, কণ্ঠশিল্পী হিসেবেও যে অবদান তিনি রেখে গেলেন তা অবিস্মরণীয়।
[আরও পড়ুন: OMG! রতিক্রিয়ায় পারদর্শী পুনমের কাছে পুরুষ ভোলানোর কৌশল শিখতে চান কঙ্গনা! ]

Source: Sangbad Pratidin

Related News
রক্ষকই ভক্ষক! ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে ব্যাংক ডাকাতি খোদ পুলিশের সাসপেন্ডেড অফিসারের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুলিশ যখন ডাকাত- এভাবে বললে পুরো ঠিক বলা হয় না, আবার সম্পূর্ণ ভুলও না। সম্প্রতি অমৃতসরের Read more

পরিচালকের কাজে অসন্তুষ্ট, ‘কভি ইদ কভি দিওয়ালি’ ছবির পরিচালনার দায়িত্বে খোদ সলমন!

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেটে আসছেন না পরিচালক ফারহাদ সামজি। তাঁর কাজেও সন্তুষ্ট নন সলমন খান (Salman Khan)। তাই ‘কভি Read more

‘ফেসবুকে সংগঠন করা যায় না, মানুষের সঙ্গে থাকতে হয়’, তৃণমূলে ফিরেই বিজেপিকে তোপ অর্জুনের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সময়ের হিসেবে ৩ বছর ২ মাস ৮ দিন। তারই মধ্যে বহু ফাঁকফোকর চোখে পড়েছে। উপলব্ধি হয়েছে, Read more

‘জ্ঞানবাপী মসজিদের ‘শিবলিঙ্গ’ পুজো করতে চাই’, আদালতে যাচ্ছেন কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের মোহন্ত

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রার্থনা করতে দিতে হবে জ্ঞানবাপী মসজিদের (Gyanvapi Mosque) ওজুখানায় প্রাপ্ত ‘শিবলিঙ্গে’র সামনে। আদালতে এমনই আরজি জানানোর Read more

এমন প্রথাও হয়! বিয়ের পর তিনদিন শৌচালয়ে যেতে দেওয়া হয় না নবদম্পতিকে!

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে কত ধরনের রীতিনীতি, প্রথা, বিশ্বাস, আচার, অনুষ্ঠানই না রয়েছে। ‘বিপুলায় এ পৃথিবী’র সবটুকু জেনেও ওঠা Read more

বছরের পর বছর একই তোয়ালে, চিরুনি ব্যবহার? নিজের ক্ষতি না চাইলে জেনে নিন বদলের দিনক্ষণ

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বালিশ, ব্রাশ, তোয়ালে – রোজকার ব্যবহৃত জিনিসপত্রের মধ্যে এই তিনটি নাম একেবারে প্রথমে মনে পড়ে। নষ্ট Read more