বাংলার ঘরে লক্ষ্মী আনছে হস্তশিল্প, বিধানসভায় তথ্য পেশ মুখ্যমন্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলার হস্তশিল্পীদের তৈরি জিনিস বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে। বিভিন্ন হাট-মেলায় লক্ষ লক্ষ মানুষ তা কিনছেন। বর্তমান সরকারের আমলে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর ব‌্যাপক উন্নতি হয়েছে। যেকারণে হয়েছে আর্থিক সমৃদ্ধি। সোমবার বিধানসভায় এক প্রশ্নোত্তরপর্বে একথা জানালেন রাজ্যের মুখ‌্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ‌্যায়। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের হস্তশিল্প আমাদের সম্পদ। মেলায় যত খুচরো বিক্রি বাড়বে তত ভালো হবে। আমাদের হস্তশিল্পীদের জিনিস বিভিন্ন শপিং মল কিনছে। অ‌্যামাজনের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। বাইরেও যাচ্ছে।’’
স্বনির্ভর গোষ্ঠীর প্রকল্পের উন্নয়নে রাজ্যে প্রসঙ্গে মমতা আরও বলেন, “আমি নিজে দেখেছি লক্ষ লক্ষ মানুষ হস্তশিল্প মেলায়। আমাদের হাতের শিল্প আমাদের সম্পদ। যত খুচরো বিক্রি বাড়বে। তত ভালো হবে। স্বনির্ভর গোষ্ঠী আজ অনেক কাজ করছে। এটা আমাদের সেরা গ্রুপ। আমাদের ইকোনমি গ্রোথ বেড়েছে। উৎকর্ষ বাংলার মাধ্যমে অনেক প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে৷ অনেক চাকরি হচ্ছে। খুব ভালো কাজ হচ্ছে৷ প্রশিক্ষণ দেওয়ায় আমরা দেশে এক নম্বর।” শুধু মহিলারা নন, পুরুষরাও যে এই গোষ্ঠীর মাধ‌্যমে কাজ করছেন, সেকথাও এদিন উল্লেখ করেন মুখ‌্যমন্ত্রী। বলেন, “আমরা ক্ষমতায় এসে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সংখ্যা বৃদ্ধি করেছি। আগের সেল্ফ হেল্প গ্রুপে যে সংখ্যক মহিলা যুক্ত ছিলেন, এখন তা আরও বেড়েছে। পুরুষরাও সমান তালে করছেন। ২ হাজার কোটি বাম আমলে বিনিয়োগ ছিল। এখন ৯২ হাজার কোটি হয়েছে। সরকার সাহায্য করছে। পুরুষ ও মহিলার ভাগ দেখা হচ্ছে না। বাংলা এগিয়েছে। বাংলা মেলা দেখতে ভালোবাসে। পুজোই তার প্রমাণ। পুজোর সময় রাজ্যে ৮২ হাজার কোটি টাকার ব‌্যবসা হয়েছে।’’
[আরও পড়ুন: জমি হাতাতে স্বামীকে চাপ! শিলিগুড়িতে মা-মেয়ের রহস্যমৃত্যুতে নাম জড়াল তৃণমূল নেতার]
পাশাপাশি এদিন রাস্তা তৈরির টাকা আটকে রাখার জন‌্য কেন্দ্রের সমালোচনাও করেন মুখ‌্যমন্ত্রী। বলেন, ‘‘ আমরা কয়েকদিন আগে রাজ্যে প্রায় ১১ হাজার কিমি রাস্তা তৈরি করেছি। কেন্দ্র টাকা দিচ্ছে না। আমাদের সাংসদদের তহবিল থেকে ও বিদ্যুৎ দপ্তরের মুনাফা থেকেও টাকা দিয়ে গ্রামীণ রাস্তা তৈরি করা হচ্ছে, কিছু রাস্তা আছে যেগুলো খারাপ। আরও টাকা এলে আমরা করব।’’ পাশাপাশি সেতু নির্মাণ প্রসঙ্গে বক্তব‌্য রাখতে গিয়ে মুখ‌্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমরা ক্ষমতায় আসার পর ৯৫১টি সেতু তৈরি করেছি। যাতে খরচ হয়েছে ৭১৪২ কোটি টাকা। ২০১১ সালে সেখানে ১৬১টি ব্রিজ ছিল।’’
[আরও পড়ুন: পুলিশের সামনেই বোমাবাজি! পুরনো বিবাদের জেরে রাতভর উত্তপ্ত ধুলিয়ান]

Source: Sangbad Pratidin

Related News
পাঞ্জাব ভোটের ঠিক আগে মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নির ভাইপোকে গ্রেপ্তার করল ED
পাঞ্জাব ভোটের ঠিক আগে মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নির ভাইপোকে গ্রেপ্তার করল ED

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাঞ্জাবে ভোটগ্রহণ আর মাত্র সপ্তাহ দুয়েক পরে। তার ঠিক আগে আগে ইডির হাতে গ্রেপ্তার হয়ে গেলেন Read more

এখনই সময়, দুর্বল পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় বসুক ভারত
এখনই সময়, দুর্বল পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় বসুক ভারত

পাকিস্তান যখন চাপের মুখে, ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক রচনায় মরিয়া তখন দুর্বল পাকিস্তানের সঙ্গে বোঝাপড়া খুবই উচিত কাজ। পাকিস্তান এখন কাশ্মীরে Read more

আরও ১৭ পণবন্দিকে মুক্তি দিল হামাস, ৩৯ প্যালেস্তিনীয় বন্দিকে ছাড়ল ইজরায়েলও
আরও ১৭ পণবন্দিকে মুক্তি দিল হামাস, ৩৯ প্যালেস্তিনীয় বন্দিকে ছাড়ল ইজরায়েলও

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুক্রবার মুক্তি দেওয়া হয়েছিল ২৫ জনকে। এবার আরও ১৭ জনকে মুক্তি দিল হামাস। পণবন্দিদের মুক্তি দেওয়ার Read more

অবশেষে খাঁচাবন্দি ‘মানুষখেকো’ চিতাবাঘ, তাসাটি চা বাগানে স্বস্তির হাওয়া
অবশেষে খাঁচাবন্দি ‘মানুষখেকো’ চিতাবাঘ, তাসাটি চা বাগানে স্বস্তির হাওয়া

রাজকুমার, আলিপুরদুয়ার: অবশেষে খাঁচাবন্দি আলিপুরদুয়ারের ‘ত্রাস’। ছাগলের টোপ দিয়ে খাঁচাবন্দি করা হল ‘মানুষখেকো’ চিতাবাঘটিকে। স্বস্তিতে মাদারিহাট-বীরপাড়া ব্লকের তাসাটি চা বাগানের Read more

রাজ্যে ডেঙ্গুর চোখরাঙানি, আগামী সাতদিনের মধ্যে নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ মুখ্যসচিবের
রাজ্যে ডেঙ্গুর চোখরাঙানি, আগামী সাতদিনের মধ্যে নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ মুখ্যসচিবের

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: করোনার বাড়বাড়ন্তের মাঝে রাজ্যে চোখরাঙাচ্ছে ডেঙ্গু (Dengue)। কালীঘাটের বাসিন্দা স্কুলছাত্রের মৃত্যুতে বাড়ছে উদ্বেগ। মশাবাহিত রোগের বাড়বাড়ন্ত ঠেকাতে তৎপর Read more

একের পর এক লাভ জেহাদ! পালটা ‘মহাপঞ্চায়েত’ হিন্দুত্ববাদীদের, ফের উত্তপ্ত উত্তরকাশী
একের পর এক লাভ জেহাদ! পালটা ‘মহাপঞ্চায়েত’ হিন্দুত্ববাদীদের, ফের উত্তপ্ত উত্তরকাশী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একের পর এক লাভ জেহাদের ঘটনার অভিযোগ। পালটা মহাপঞ্চায়েতের ডাক হিন্দুত্ববাদীদের। পদক্ষেপ, পালটা পদক্ষেপে ফের উত্তপ্ত Read more